গাজা-গণহত্যা

গাজায় ফিলিস্তিনিদের ওপর চালানো ইসরায়েলি আগ্রাসনকে গণহত্যা হিসেবে আখ্যা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন মার্কিন নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভান। গাজায় শিশুসহ ফিলিস্তিনি বেসামরিক নাগরিকদের ওপর নির্যাতন সত্ত্বেও বাইডেন প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তার এমন পদক্ষেপকে ইসরায়েলের জন্য ঢাল হিসেবে দেখছেন বিশ্লেষকরা।

আরও পড়ুন : বুয়েটেও ফিলিস্তিনের স্বাধীনতার দাবি নিয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীদের অবস্থান

ইসরায়েলের বিরুদ্ধে আন্দোলন করায় যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের ওপর নির্যাতন চালাচ্ছে মার্কিন প্রশাসন। এমন পরিস্থিতিতে গাজা যুদ্ধ নিয়ে মার্কিন অবস্থানের বিষয়ে এক সাংবাদিক একাধিকবার জিজ্ঞাসা করলেও সুলিভান ইসরায়েলের আগ্রাসনকে হত্যা হিসেবে আখ্যা দিতে অস্বীকৃতি জানান।

ইসরায়েলের পক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের নীতি নিয়ে দেশটির বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলন চলছে। এর প্রতি সংহতি জানাচ্ছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের শিক্ষার্থীরাও। তারা যুক্তরাষ্ট্রকে ইসরায়েলের জন্য সাহায্য ও সহায়তা সরবরাহ থেকে সরে যাওয়ার আহ্বান জানাচ্ছে।

আরও পড়ুন : Over 1,000 arrested so far in protests on U.S. college campuses nationwide

usiযদিও আমেরিকার পশ্চিমা মিত্রসহ সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ গণহত্যার ডাকে সোচ্চার হয়ে উঠেছে। তবুও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এখনও ইসরায়েলি সরকারকে সমর্থন অব্যাহত রেখেছে।

[গাজায় ইসরায়েলি বর্বরতাকে গণহত্যা বলতে নারাজ আমেরিকা]

IUSAসুলিভানের এই প্রতিক্রিয়া আবারও বাইডেন প্রশাসনের মানবাধিকারকে সর্বজনীন করার দাবিকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। আমেরিকার শিক্ষার্থীরাও ইসরায়েলের প্রতি মার্কিন নীতিকে দ্বিচারিতা হিসেবে মনে করছেন। কারণ তারা গাজার গণহত্যার বিষয়টিকে দেখেও না দেখার ভান করছে।

আরও পড়ুন :