মার্কিন

গত ২৮ অক্টোবর সরকারবিরোধী সমাবেশ করার জন্য অক্টোবরের শেষদিকে বিএনপির শীর্ষ পর্যায়ের এক নেতার সঙ্গে মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাস বৈঠক করেছিলেন বলে দাবি করেছে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

আরও পড়ুন : ঢাকার আমেরিকান এমব্যাসি কি ডানপন্থী জঙ্গিদের আশ্রয়স্থল হয়ে উঠলো?

খালেদা-তারেক গংদের মার্কিন প্রভুদের সহায়তায় বিএনপির এরূপ নগ্ন দেশবিরোধী চক্রান্তের কথা আবারও ফাঁস করলো রাশিয়ান কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন : বিএনপি সাদা হাতিদের উপর নির্ভর করে রাষ্ট্র ক্ষমতায় যাওয়ার স্বপ্ন দেখে

এ নিয়ে এর আগে শুক্রবার শুধুমাত্র খণ্ডিত অংশ দিয়ে একটি এক্স বার্তা দিয়েছিলেন রাশিয়ান মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা। এবার তার বক্তব্যের পুরো ইংলিশ অংশ প্রকাশ করে বাংলাদেশে রাশিয়ার দূতাবাস।

রাশিয়া জানায়, “যুক্তরাষ্ট্র ও এর মিত্ররা ‘স্বচ্ছতা’ ও ‘অন্তর্ভুক্তিমূলক’ নির্বাচনের “অজুহাতে” বাংলাদেশের রাজনৈতিক প্রক্রিয়া প্রভাবিত করার চেষ্ঠা করছে।” এ নিয়ে রাশিয়া বারবারই বলে এসেছে।

আরও পড়ুন : বাংলাদেশ নির্বাচন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান দেখে দলের নেতাদের নির্বাচনের প্রস্তুতির নির্দেশ তারেকের!

জাখারোভা আরও বলেন, ‘মার্কিন রাষ্ট্রদূতের আচরণ নগ্নভাবে ভিয়েনা কনভেনশনের লঙ্ঘন এবং এটিকে ওয়াশিংটন ও তার মিত্রদের পক্ষ থেকে একটি স্বাধীন রাষ্ট্রের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ হিসাবে বিবেচনা করা যায়।’

[বাংলাদেশে মার্কিন হস্তক্ষেপের নিন্দা জানিয়েছে রাশিয়া]

এতে আরও বলা হয়, ‘রাশিয়ার মনে কোনও সন্দেহ নেই যে জানুয়ারি ৭, ২০২৪ এ বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ আইন অনুযায়ী, স্বাধীনভাবে এবং বিদেশিদের সহায়তা ছাড়াই একটি সফল নির্বাচন সম্পন্ন করতে পারবে।’

আরও পড়ুন :