রপ্তানি

টিভি টকশোতে প্রতিদিনই বিএনপির ‘মন-খারাপ টিম’ এর উচ্চকিত কণ্ঠ শোনা যায়। দেশের প্রতিটি উন্নয়ন, প্রতিটি অগ্রগতিতে তাদের ব্যাপক অন্তর্জ্বালা অনুভব করছে দেশবাসী। তাদের কণ্ঠ থেকে ঝরে ঝরে পড়ে আক্ষেপ আর অপপ্রচার। বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা হয়ে যাচ্ছে- এই তাবিজ বিক্রি করছে বিএনপি গত ৬ মাস ধরে। যদিও শ্রীলঙ্কা তো হয়নি, উল্টো একে একে নিজেদের রেকর্ড টপকে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

বিএনপির অপরাজনীতির কফিনে আরো একটি পেরেক ঠুকলো বাংলাদেশের অর্থনীতির সাম্প্রতিক সাফল্য। সমালোচকদের মুখে ছাই মেখে চলতি অর্থবছরেই ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ৫০ বিলিয়ন (৫ হাজার কোটি) ডলারের মাইলফলক ছাড়িয়েছে বাংলাদেশের রপ্তানি।

আরও পড়ুনঃ রপ্তানি আয়ে ৫০ বিলিয়নের ক্লাবে বাংলাদেশ

জ্বালানি তেল রপ্তানিকারক দেশগুলো বাদে বাংলাদেশ বর্তমানে বিশ্বের প্রথম ৫০টি রপ্তানিকারক দেশের একটি। দক্ষিণ এশিয়ায় দ্বিতীয়, অর্থাৎ এখন ভারতের পরই বাংলাদেশের অবস্থান।

[বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথম ৫০ বিলিয়ন ডলারের রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত, লঙ্কার খোয়াব দেখা বিএনপির মন খারাপ]

চলতি অর্থবছরে পণ্য ও সেবা মিলিয়ে মোট ৫ হাজার ১০০ কোটি ডলারের পণ্য রপ্তানির লক্ষ্য ধরা হয়েছিল, যা এরই মধ্যে ৫ হাজার ৮০০ কোটি ডলার ছাড়িয়েছে। ন্যূনতম ১০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি ধরে আগামী অর্থবছর রপ্তানি ৬ হাজার ৫০০ কোটি ডলারে দাঁড়াতে পারে। সে হিসেবে আগামী অর্থবছরের জন্য এর কাছাকাছি পরিমাণে লক্ষ্য নির্ধারণ হবে।

আশার কথা হলো, আগামী ২ বছরে বাংলাদেশের রপ্তানির পরিমাণ ৮০ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যাওয়ার প্রত্যাশা রয়েছে।

এই অর্জনের জন্য সকল রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান ও নিরলস কাজ করে যাওয়া শ্রমিকগণ ধন্যবাদ প্রাপ্য। বাংলাদেশ এখন একটি শক্ত অর্থনীতির ওপর দাঁড়িয়ে। গুজব-অপপ্রচার ও প্রোপাগান্ডা ছড়ানো বিএনপি ও দেশবিরোধী চক্রের অপতৎপরতাকে পায়ে দলে এগিয়ে যাচ্ছে শেখ হাসিনার বাংলাদেশ। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।

আরও পড়ুনঃ